নবীনগর পৌর এলাকায় অবৈধ ভাবে খাল ভরাটের মহাৎসব :: ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানা

0 3

মিঠু সূত্রধর পলাশ,নবীনগর প্রতিনিধি:  ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর পৌর এলাকার ২ নং ওয়ার্ডের পশ্চিম পাড়ায় অবৈধ ভাবে সরকারি খাল ভরাট করে রাস্তা নির্মান করায় ভ্রাম্যমান আদালত খোরশেদ আলম (৫০) নামে এক ব্যাক্তিকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন।আজ রবিবার দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইকবাল হাসান এই দন্ড প্রদান করেন।

সূত্রে জানা যায়,রবিবার সকালে পৌর এলাকার ২নং ওয়ার্ডের পশ্চিম পাড়ার একটি মাদ্রাসার সাথের সরকারি খালটি অবৈধ ভাবে বালি ফেলে ভরাট করছিলেন খোরশেদ আলম নামে এক ব্যাক্তি।
স্থানীয়রা খাল ভরাটের এই বিষয়টি উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি)কে অবগত করলে ওই দিন দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইকবাল হাসান সরজমিনে গিয়ে উপস্থিত হন। এবং এসময় তিনি খাল ভরাটের দায়ে খোরশেদ আলমকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা ও দু’দিনের মধ্যে খাল থেকে বালি সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ প্রদান করেন।
সরজমিনে গেলে জানা যায়, পৌর এলাকার ২নং ওয়ার্ডের পশ্চিম পাড়ার পুরাতন সরকারি খালটি অবৈধ ভাবে অনেকেই দখল করে রেখেছেন। এই ভরাট ও খালটি পুরুদ্ধারের জন্য প্রতিকার চেয়ে স্থানীয় জনসাধারণ একাধীক লিখিত আবেদনও করেছেন। কিন্তু এসব প্রতিবাদ পাত্তা না দিয়ে স্থানীয় প্রভাবশালীরা খালটি ভরাট করে ফেলছেন।
খবর পেয়ে সরজমিনে দেখা যায় এ যেন এক খাল ভরাটের মহাউৎসব চলছে এখানে।

স্থানীয় এক শিক্ষক গোলাম হোসেন মাষ্টার, রিক্সা চাল হানিফ মিয়া সহ আরো অনেকেই জানান, এই খাল দিয়ে এক সময় অনেক নৌকা আসা যাওয়া করতো, ফসলি জমির অনেক পাট খেত এইখালে পচানো হতো। এখন দখল ও দূষনে সব একাকার হয়ে গেছে। আমরা এসবের প্রতিকার চেয়ে মানব্বন্ধন করে লিখিত ভাবে একাধিকবার প্রশাসনকে জানিয়েছি। প্রশাসন আসেন,জরিমানা করেন কিন্তু কিছুদিন পর আবার ভরাট শুরু হয়।

এ বিষয়ে সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. ইশবাল হাসান বলেন, সরকারি খাল ভরাটের অপরাধে খোরশেদ আলম কে জরিমানা ও খাল থেকে বালি সরিয়ে নিতে নিদের্শ দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও সবার জানা উচিত, সরকারি খাল ভরাট করা আইনত দন্ডনিয় অপরাধ। কেউ সরকারি খাল ভরাট ও দখল করলে তার বিরোদ্ধে আইন গত ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.