হাসির রাজ্য

0 1

(১)
সানজিদুল : কিরে হিজবুল ! তোর বউটা সব সময় মুখটা এমন পেঁচার মত মুখ করে থাকে কেন ?
হিজবুল : আর বলিস না। বাশর রাতে একবার ভূল করে বলে ফেলেছিলাম যে, “রাগলে তোমাকে অনেক সুন্দর লাগে” – তারপর থেকে তোর বউদি সব সময় রেগেই থাকে।।।

(২)
ছিয়াম ক্লাস ওয়ান-এ পড়ে। ক্লাসে পড়া না পারার জন্য স্যার ছিয়ামকে টেবিলের নিচে মাথা দিয়ে বেত দিয়ে পিছন দিকে খুব পিটিয়েছে। অত:পর ছিয়াম কাঁদতে কাঁদতে বাসায় চলে আসলো। কারো সাথে কোন কথা নেই, চুপচাপ রুমে ঢুকে দরজা লাগিয়ে আয়নার সামনে গিয়ে প্যান্টটা খুলে ফেলল। এরপর আউমাউ করে কাঁদতে কাঁদতে আম্মুর কাছে গিয়ে বলল –
আম্মু আম্মু দেখ শালার বজ্জ্বাত স্যারটা মেরে আমার পাছাটা দু’ভাগ করে দিয়েছে…………………

(৩)
ছেলেকে নতুন বিয়ে দিয়ে মা অনেক টেনশনে পড়ে গেছেন………
কারণ আর কিছু নয়, ছেলেটা একটু বোকাসোকা টাইপের। মুখ দিয়ে কাথাই বের হতে চায় না। আর যদিও একটা দুইটা বের হয়, সেগুলো আবার……………
ছেলে আজ প্রথমবারের মত শশুর বাড়ী যাচ্ছে………….
মা : বাবা, শশুর বাড়ী গিয়ে একদম চুপচাপ বসে থাকিস না। শশুরের সাথে কথাবার্তা বলিস। শশুরের খোজ-খবর নিবি।
ছেলে : আচ্ছা মা। তুমি একদম চিন্তা করো না।

তো ছেলে শশুর বাড়ী গেল। শশুর আসছে। জামাইতো খুব টেনশনে, কি কথা বলবে ? অত:এক সময়…..
জামাই : আব্বা, কেমন আছেন ?
শশুর : জ্যী বাবা ভালো। তা তুমি কেমন আছ ?
জামাই : আমি ভালো আছি। তা আব্বা আপনি বিয়ে করেছেন ?
শশুর : বিয়ে না করলে মেয়ে আসলো কোথা থেকে ?
জামাই : আব্বা, আপনার মেয়ে ও আছে ?
শ্বশুর : মেয়ে না থাকলে তুমি জামাই হলে কিভাবে ?
জামাই : ও তাই বুঝি !! তা আব্বা কাকে বিয়ে করেছেন ?
শ্বশুর : তোমার শ্বাশুড়ীকে।
জামাই : হা হা হা ।। তাহলে তো আব্বা , আপনি আত্তীয়তার ভিতর আবার আত্বীয়তা করে ফেলেছেন। ব্যপারটা কেমন হয়ে গেল না…………………??? একটু দুরে বিয়ে করলে এক ঘর আত্বীয় বেশি হতো…..!!!!

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares