কসবায় সাধারণ সদস্য পদে বিপুল ভোটে আবদুল আজিজের জয়

0 1

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জেলা পরিষদ নির্বাচনের সাধারণ সদস্য পদে বিপুল ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীকে পরাজিত করে প্রথমবারের মতো কোনো নির্বাচনে জয়লাভ করলেন কসবার যুবনেতা মোঃ আবদুল আজিজ। জেলা পরিষদের ৭ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ডে (কসবা উপজেলা) তালা প্রতিক নিয়ে আবদুল আজিজ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। তিনি ৯১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি মোঃ জহিরুল হক খাঁন হাতি প্রতিকে পেয়েছেন ৫১ ভোট। গত সোমবার (১৭ অক্টোবর) কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা ও উৎসবমুখর পরিবেশে কসবা উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ইভিএমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ভোটগ্রহণ শেষে বেসরকারিভাবে প্রকাশিত ফলাফলে তিনি এ অভূতপূর্ব বিজয় অর্জন করেন।

এদিকে কসবা সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় সর্বস্তরের মহল আন্তরিক অভিনন্দনে সিক্ত করছেন আবদুল আজিজকে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ দলীয় নেতাকর্মীরা ফুলেল শুভেচ্ছায় অভিনন্দন জানাচ্ছেন। আবদুল আজিজ কসবাবাসীর উন্নয়নে নিরলস পরিশ্রম করবেন বলে বিভিন্ন মহল আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদুল কাওসার ভূইয়া জীবন কসবার জনপ্রতিনিধিদেরকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, কসবার সর্বস্তরের আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ আইনমন্ত্রী মহোদয়ের হাতকে শক্তিশালী করতে ঐক্যবদ্ধ। সুস্থ রাজনীতির প্রতি জনগণের নিরঙ্কুশ সমর্থনের বিষয়টি উল্লেখ করে বলেন- আইনমন্ত্রী মহোদয় সৎ, পরিচ্ছন্ন রাজনীতিতে বিশ্বাসী। কসবাবাসী আইনমন্ত্রীর সিদ্ধান্তে শ্রদ্ধা জানানোয় তিনি কসবাবাসীর প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। সকল জনপ্রতিনিধিদের সাথে নিয়েই কসবার উন্নয়ন আবদুল আজিজ কাজ করবেন তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

নির্বাচনে বিজয়ের প্রতিক্রিয়ায় এম এ আজিজ কসবা-আখাউড়ার অভিভাবক আইনমন্ত্রী আনিসুল হক এমপি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদুল কাওসার ভূইয়া জীবনসহ কসবার জনপ্রতিনিধি ও দলীয় নেতাকর্মীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। তিনি বলেন- কসবার আওয়ামীলীগ ঐক্যবদ্ধ বলেই আজ এ বিজয় এসেছে। এ বিজয় আইনমন্ত্রী মহোদয়ের, এ বিজয় কসবা উপজেলা আওয়ামীলীগ-যুবলীগ ও ছাত্রলীগের। আগামী ৫ বছর কসবাবাসীকে সাথে নিয়েই জেলা পরিষদের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকা- বাস্তবায়নের অঙ্গীকার করেন। তিনি সবার নিকট দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করেন।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares