বাঞ্ছারামপুর থানায় আটকে রেখে যুবককে নির্যাতন, ২ পুলিশসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

0 6

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর মডেল থানায় আবদুল আহম্মদ ওরফে রুবেল নামে এক যুবককে পুলিশ হেফাজতে আটকে রেখে নির্যাতনের অভিযোগে তিনজনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করা হয়েছে। তাদের মধ্যে দুইজন পুলিশ সদস্য রয়েছেন। রোববার দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ আদালতে রুবেলের মা বাদী হয়ে মামলা করেন। জেলা ও দায়রা জজ শারমিন নিগার মামলাটি আদেশের জন্য রেখেছেন।

মামলায় অভিযুক্তরা হলেন- বাঞ্ছারামপুর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) তরুণ কান্তি দে, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আল আমিন মানিক ও উপজেলার মধ্যপাড়া এলাকার রবি উল্লাহ।ভুক্তভোগী রুবেল উপজেলার চরশিবপুর গ্রামের লিল মিয়ার ছেলে।

রুবেলের মা মামলার বাদী আমেনা বেগম বলেন, আমার ছেলেকে গত মঙ্গলবার গ্রেফতার করা হয়। বৃহস্পতিবার তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠায় পুলিশ। ২৪ ঘণ্টার বেশি সময় হেফাজতে রেখে আমার ছেলেকে নির্যাতন করেছে পুলিশ। আমি এ মামলায় জুডিসিয়াল তদন্তের দাবি জানাই।

এ বিষয়ে বাদীপক্ষের আইনজীবী মাসুদুর রহমান বলেন, দুই পুলিশ সদস্যসহ তিনজনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করা হয়েছে। আদালত মামলাটি আদেশ দেওয়ার জন্য রেখেছেন। আগামীকাল সোমবার আদেশ দিতে পারেন। পরে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

এ বিষয়ে বাঞ্ছারামপুর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) তরুণ কান্তি দে’র বক্তব্য নিতে কয়েকবার মোবাইল ফোনে কল দিলেও তিনি ধরেননি। এএসআই আল আমিন মানিক বলেন, এই বিষয়ে আমি কিছু জানি না।

এ বিষয়ে বাঞ্ছারামপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরে আলম বলেন, শুনেছি আদালতে একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। তবে আমাদের পুলিশের বিরুদ্ধে এ সব মিথ্যা অভিযোগ।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares