কুমিল্লা থেকে অপহৃত শিশু১০ দিন পর ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে উদ্ধার

0 0

প্রতিনিধি:::কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার কণ্ঠনগর গ্রাম থেকে ১ম শ্রেণীর স্কুল ছাত্র শিশু সাকিব হাসান (৭) অপহরনের ১০ দিন পর বি-বাড়ীয়া জেলার তিতাস গ্যাসফিল্ড এলাকা থেকে বুড়িচং থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে গত মঙ্গলবার রাতে অপহৃত শিশুকে উদ্ধার এবং এক অপহরনকারীকে গ্রেফতার করে। গতকাল বুধবার সকালে বুড়িচং থানা পুলিশ কোর্টের মাধ্যমে অপহরনকারীকে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

পুলিশ জানায়, জেলার বুড়িচং উপজেলার পীরযাত্রাপুর ইউনিয়নের কণ্ঠনগর গ্রামের আব্দুল হক মেম্বারের রাইস মিলের শ্রমিক লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ উপজেলার তমিজউদ্দিন গ্রামের আব্দুল হক স্ব-পরিবারে বিগত কযেক বৎসর ধরে কাজ করে আসছে। গত ২৪ অক্টোবর স্থানীয় কণ্ঠনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণীর ছাত্র ও রাইস মিলের শ্রমিক আব্দুল হকের শিশু ছেলে সাকিব হাসান (৭) কে একই রাইস মিলের শ্রমিক মুরাদ ওইদিন সকাল ৮ টায় দোকান থেকে বিস্কুট কিনে দেওয়ার কথা বলে অপহরন করে নিয়ে যায়। পরে মুরাদ শিশু সাকিবের বাবার নিকট মোবাইল ফোন করে মুক্তিপণ ৫০ হাজার টাকা দাবি করে অন্যথায় শিশুটিকে হত্যা করা হবে বলে হুমকি দেয়।

এ ঘটনায় গত ৩০ অক্টোবর শিশুর পিতা আব্দুল হক বাদী হয়ে বুড়িচং থানায় একটি অপহরনের মামলা দায়ের করে। মামলা নং-৪৩। বুড়িচং থানা পুলিশ মোবাইল টেকিং এর মাধ্যমে অপহরণকারীকে সনাক্ত করে। গত মঙ্গলবার রাতে এস আই ইমাম হোসেন বি-বাড়ীয়া জেলার সদর থানার তিতাস গ্যাস ফিল্ড এর ৩নং বল্ক এ একটি রাইস মিল এলাকায় অভিযান চালিয়ে অপহরনকারী মুরাদকে গ্রেফতার করে। পরে তার স্বীকারোক্তিতে অপহৃত শিশু সাকিবকে পুলিশ উদ্ধার করে বুড়িচং থানায় নিয়ে আসে। অপহরনকারী হলো ভৈরব জেলা আগানগর গ্রামের সিদ্দিক মিয়ার ছেলে মুরাদ (৩০)। গতকাল বুধবার বুড়িচং থানা পুলিশ অপহরনকারী মুরাদ ও অপহুত শিশুকে কোর্টে প্রেরণ করে। এ দিকে পুলিশ আরো জানায়, অপহরণকারী মুরাদ আব্দুল হক মেম্বারের ওই রাইস মিলে বিগত ৫/৬ মাস ধরে শ্রমিক হিসেবে কাজ করে আসছিল।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares