হৃদরোগের ঝুঁকি বেশি অসুখী শিশুদের

0 0

ডেস্ক টোয়েন্টি ফোর : শৈশবের আবেগপ্রবণ আচরণে লুকিয়ে রয়েছে মধ্য বয়সের হৃদরোগের মতো অনেক স্বাস্থ্য সমস্যা। বিশেষ করে নারীদের ক্ষেত্রে এ প্রবণতা বেশি। বিশেষ করে সাত বছর বয়সের যেকোনো হতাশা বা বিষণ্নতা ভবিষ্যতে অনেক বেশি পীড়ার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের একদল গবেষকের জরিপে এমন ঝুঁকির কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

গবেষণায় দেখা গেছে, যেসব শিশুরা অধিক যত্ন এবং ভালবাসায় বড় হয়, ভবিষ্যতে এসব শিশুদের মধ্যে হৃদরোগের প্রবণতা কম দেখা যায়। তবে যুক্তরাষ্ট্রের এসব বিশ্লেষকদের দাবি, হৃদরোগের অন্যান্য কারণ খুঁজতে আরো গবেষণা প্রয়োজন।
হৃদরোগের অন্যান্য কারণ নিয়ন্ত্রণে থাকলেও শুধুমাত্র সাত বছর বয়সের বিষণ্নতা মধ্যবয়সী নারীদের হৃদরোগের ঝুঁকি ৩১ শতাংশ বাড়িয়ে দেয়। অপরদিকে পুরুষদের ক্ষেত্রে এ ঝুঁকি ১৭ শতাংশ। তবে তাদের আচরণে হতাশা এবং দ্রুত ক্রব্ধ হওয়ার প্রবণতা এর জন্য দায়ী।
এছাড়া শৈশবের ইতিবাচক আবেগ প্রবণতা ভবিষ্যতে যথার্থ হৃদস্বাস্থ্যের জন্যে উপযোগী। এদের মধ্যে শিক্ষাগত ডিগ্রি কম থাকলেও, মনের স্বাস্থ্য প্রাণবন্ততার কমতি নেই। এছাড়া এ গবেষণায় শৈশবের ভয়, আতঙ্ক ইত্যাদি বিষয়গুলো ভবিষ্যতে হৃদরোগে কিভাবে প্রভাবিত করে এটিই দেখা হয়।

ব্রিটিশ হার্ট ফাউন্ডেশনের এক সিনিয়র হৃদরোগ বিভাগের মেওরিন টালবট বলেন, একজন শিশুর ভবিষ্যতে আচরণ কেমন হবে এটি অনেকাংশে শিশুর হৃদয়ের ওপর নির্ভর করে। শিশুদের ভবিষ্যত হৃদরোগ নিয়ন্ত্রণে বাবা-মাকে শৈশবেই শিশুস্বাস্থ্যের বিষয়ে মনোযোগী হওয়া উচিত। কিন্তু ভবিষ্যতের হৃদরোগ এবং শৈশবের আবেগপ্রবণতার সঙ্গে এর সম্পর্ক নির্ধারণে আরো অনেক গবেষনা প্রয়োজন বলে মনে করেন তিনি।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares