হিজবুল্লাহ নেতাকে ‘অসাধারণ ব্যক্তিত্ব’ বললেন জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ।

0 0
অনুসন্ধানী ওয়েবসাইট উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ বলেছেন, লেবাননের হিজবুল্লাহর মহাসচিব সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ মধ্যপ্রাচ্যের সবচেয়ে অসাধারণ ব্যক্তিত্বদের মধ্যে অন্যতম। অ্যাসাঞ্জ রুশ টেলিভিশন আর টি-তে “আগামী বিশ্ব” শীর্ষক একটি টক-শো’তে হিজবুল্লাহ-প্রধানের সাক্ষাৎকার নেয়ার আগে এই মন্তব্য করেছেন। অ্যাসাঞ্জ এই প্রথম কোনো টক-শো’তে অংশ নিয়েছেন। ওই অনুষ্ঠানে সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ সিরিয়ার সহিংসতার ব্যাপারে হিজবুল্লাহর দৃষ্টিভঙ্গি ব্যাখ্যা করেছেন। ২০০৬ সালে লেবানন ও ইসরাইলের যুদ্ধের পর পাশ্চাত্যের কোনো সংবাদ মাধ্যমে এটাই জনাব নাসরুল্লাহ’র প্রথম সাক্ষাৎকার।
লেবাননের জনপ্রিয় ইসলামী সংগঠন হিজবুল্লাহর মহাসচিব সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের প্রতি সমর্থনের কথা নিশ্চিত করেছেন। তিনি এ প্রসঙ্গে মার্কিন ও ইসরাইলি চাপ সত্ত্বেও লেবানন ও ফিলিস্তিনের দখলদার বিরোধী প্রতিরোধ আন্দোলনগুলোর প্রতি আসাদ সরকারের স্থায়ী সমর্থন এবং এ সরকারের গুরুত্বপূর্ণ অবদানের কথা তুলে ধরেন।
ওই সাক্ষাৎকারে সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ জানিয়েছেন, হিজবুল্লাহ সিরিয়ার বিদ্রোহীদেরকে সরকারের সঙ্গে আলোচনার টেবিলে বসে বিরোধ মীমাংসা করতে রাজি করানোর জন্য তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। তিনি বলেছেন, “আমি প্রথমবারের মত জানাচ্ছি যে, আমরা আসাদ সরকারের সঙ্গে সংলাপের প্রক্রিয়া চালু করতে বিরোধী দলগুলোকে উৎসাহ দেয়ার জন্য তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি, কিন্তু তারা সংলাপের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে।”
অ্যাসাঞ্জের সঙ্গে কথোপকথনে সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ আরও বলেছেন, “সিরিয়ার সরকার প্রথম থেকেই সংস্কারের আগ্রহ দেখিয়েছে, অন্যদিকে বিরোধীরা সংস্কার ও সংলাপে রাজি হয়নি, আর এটাই হল সমস্যা।” তিনি সিরিয়ার সরকার বিরোধী সশস্ত্র গ্রুপগুলোর হাতে বেসামরিক নাগরিক হত্যার ব্যাপারে আন্তর্জাতিক সমাজ ও পশ্চিমা সংবাদ মাধ্যমগুলোর নিরবতা এবং দামেস্কের বিরুদ্ধে তাদের একপেশে প্রচারণার নিন্দা জানান। হিজবুল্লাহর নেতা হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, সংলাপ না থাকলে গৃহযুদ্ধই হবে একমাত্র পরিণতি, সিরিয়ায় এখন গৃহযুদ্ধ চলছে , কোন পক্ষ যখন পিছু হটছে অন্য পক্ষ এগিয়ে আসছে, আর সংলাপ শুরু না হওয়া পর্যন্ত এটা চলতেই থাকবে। তিনি আরও বলেছেন, মার্কিন সরকার ও ইসরাইল ঠিক এটাই চায়। আরব সরকারগুলো ইসরাইলের সঙ্গে দশকের পর দশক ধরে আলোচনা চালিয়ে যেতে রাজি অথচ তারা সিরিয়ার বিরোধের রাজনৈতিক সমাধানের জন্য মাত্র দুই মাস ধরে প্রচেষ্টা চালাতে প্রস্তুত নয়। সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ ইহুদিবাদী ইসরাইলকে একটি অবৈধ রাষ্ট্র হিসেবে উল্লেখ করে বলেছেন, ইসরাইল চিরকালই অবৈধ রাষ্ট্র হিসেবে বিবেচিত হবে, কারণ, অন্যদের দেশ বা ভূমি দখলের ভিত্তিতে ইসরাইল প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। ইসরাইলি দখলদারিত্বের বহু বছর পরও ফিলিস্তিনিদের ভূমি ফিলিস্তিন হিসেবেই বিবেচিত হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন। সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ বলেছেন, ফিলিস্তিনের প্রকৃত অধিবাসীদের নিয়ে সেখানে একটি গণতান্ত্রিক সরকার গঠনই ফিলিস্তিন সংকটের একমাত্র সমাধান এবং এই স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্রে স্থানীয় মুসলমান, ইহুদি ও খ্রিস্টানরা পরস্পরের সঙ্গে শান্তিতে বসবাস করতে পারবে।

সূত্র : দি ইন্টারনেট নিউজ।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares