বাহরাইনে নিহত পাঁচজনের দাফন সম্পন্ন, এলাকায় তিনদিনের শোক ঘোষণা

0 0

প্রতিবেদক : বাহরাইনে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরের পাঁচজনের দাফন সম্পন্ন হয়েছে।বুধবার দুপুর পৌনে ১২টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার কাইতলা যজ্ঞেশর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তিনজনের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

অপর দুইজনের জানাজা একই সময়ে পার্শ্ববর্তী বিটঘর ইউনিয়নের গুড়িগ্রাম ও ভৈরবনগর গ্রামে অনুষ্ঠিত হয়।

জানাজায় নিহতদের স্বজন ছাড়াও নবীনগরের সংসদ সদস্য শাহ জিকরুল আহমেদ খোকন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)আ ন ম নাজিম উদ্দিন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খায়রুল আলম সুমন, নবীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) পেয়ার আহমেদ, কাইতলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নানসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

জানাজা শেষে নিহতদের সবাইকে পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

এসময় নবীনগরের সংসদ সদস্য শাহ জিকরুল আহমেদ খোকন তার এক মাসের বেতন (এক লাখ টাকা ) নিহতদের প্রতি উৎসর্গ করেন। তিনি প্রতিটি পরিবারকে ২০ হাজার টাকা করে দেওয়ার কথা সাংবাদিকদের জানান।

কাইতলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান  জানান, এলাকাবাসী সিদ্ধান্ত নিয়েছে বুধবারসহ আগামী দু’দিন নিহতদের জন্য শোক পালন করা হবে।

বৃহস্পতিবার কাইতলা যজ্ঞেশর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে শোকসভার আয়োজন করা হবে। পরদিন শুক্রবার এলাকার প্রতিটি মসজিদে নিহতের জন্য দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হবে।

প্রসঙ্গত, গত ১১ জানুয়ারি বাহরাইনের রাজধানী মানামায় আগুনে পুড়ে ১৩ বাংলাদেশি নিহত হন। এদের মধ্যে পাঁচজনের বাড়ি নবীনগর উপজেলায়। তারা হলেন, ওয়ালী গ্রামের আবু নাছের মিয়ার ছেলে জসিম (৪০), কাইতলার শহীদ মিয়ার ছেলে সাইফুল ইসলাম ওরফে সুজন (২৫) ও স্বপন মিয়া (২১), বিটঘর ইউনিয়নের গুড়িগ্রামের দিনমজুর আবুল বাশারের ছেলে মো. আনোয়ার হোসেন (২৫) ও ভৈরবনগর গ্রামের চাঁদ মিয়ার ছেলে জারু মিয়া (৩৫)।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares