নবীনগরে দেবরের পেট্রোলে ঝলসে গেল ভাবি

0 0

মিঠু সূত্রধর পলাশ, নবীনগর প্রতিনিধি: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে লতিফা বেগম (৪২) নামে এক গৃহবধূকে গায়ে পেট্রল ঢেলে পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে দেবরের বিরুদ্ধে। গত রোববার (১৯ মার্চ) বিকেলের দিকে উপজেলার রসুল্লাবাদ ইউনিয়নের উত্তর দাররা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, লতিফা তার বাড়িতে পিঠা বানানোর সময় পেছন থেকে গায়ে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় জালাল। এতে আগুনে দগ্ধ হয়ে তার পুরো শরীর ঝলসে যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে রাজধানীর ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়।

লতিফার অবস্থা শংকটাপন্ন বলে জানিয়েছেন বার্ন ইনস্টিটিউটের চিকিৎসকরা। লতিফার স্বামী মো. জাকারিয়া জানান, পারিবারিক কথা কাটাকাটির জের ধরে ছোট ভাই এই ঘটনা ঘটিয়েছে।

তিনি আরও জানান, চার-পাঁচ দিন আগে স্ত্রী লতিফা বেগম ও জালালের কথা কাটাকাটি হয়। এ নিয়ে পরে দুই ভাইয়ের মধ্যেও ঝগড়া হয়। এ ঘটনার জেরেই তার স্ত্রীকে পুড়িয়ে দিয়েছে জালাল। ঘটনার সময় তিনি বাড়িতে ছিলেন না।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রবাসী জাকারিয়া দেড় বছর আগে দেশে আসেন। লতিফা বেগম একই উপজেলার কালঘড়া গ্রামের হেলাল সরকারের মেয়ে।

১৯৯৬ সালে উপজেলার উত্তরদাররা গ্রামের জিন্নত আলী ব্যাপারির ছেলে জাকারিয়ার সঙ্গে বিয়ে হয় লতিফা বেগমের। তাদের দুই ছেলে রয়েছে।

এ বিষয়ে নবীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাইফুদ্দিন আনোয়ার বলেন, অভিযুক্ত দেবর জালাল একজন মাদকাসক্ত। পারিবারিক বিবাদ নিয়ে সে এই কাজটি করেছে। অগ্নিদগ্ধ লতিফা বেগম ঢাকায় চিকিৎসাধীন। অভিযুক্ত দেবর পালিয়ে গেছে। এ ঘটনায় লিখিত কোনো অভিযোগ পায়নি।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares