সীমান্তবর্তী এলাকায় মাদক সম্রাট নবির ও শফিক’র মাদক ব্যবসা চলছে প্রকাশ্যে

0 0
স্টাফ রিপোর্টার ॥ আখাউড়া উপজেলার ছোট কুড়িপাইক্কা গ্রামের মাদক ও চোরাচালান সিন্ডিকেটের মূল হোতা মাদক সম্রাট নবির মিয়ার মাদক চোরাচালান ব্যবসা দীর্ঘদিন ধরে চলছে অবাধে। ছোট বড় বেশকয়েকটি সিন্ডিকেট একাই নিয়ন্ত্রণ করছে ওই সম্রাট। হীরাপুর, কুড়িপাইক্কা, আনোয়ারপুর সীমান্তবর্তী এলাকায় একচ্ছত্র্য প্রভাব বিস্তার করে মাদক সম্রাট নবির ও শফিক উপজেলার বিভিন্ন মাদক স্পটে অবাধে মাদক পাচার করছে দিনের পর দিন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকের অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিন সীমান্তের ওপার থেকে শতশত পিছ ফেন্সিডিল, রিকোডেক্স, রডোকপ ইত্যাদি নেশা জাতীয় মাদক আনয়ন করে বিভিন্ন জায়গায় খুচরা ও পাইকারী হারে বিক্রি করছে। তাছাড়া আনোয়ারপুরের শফিক, ভুট্টু, হেলেনা ও তার ছেলে শিমুল কল্যাণপুরের আলমগীরসহ বেশকিছু মাদক বিক্রেতার মাধ্যমে তার মাদক ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে দীর্ঘদিন যাবত। প্রতিদিন শতশত মোটরসাইকেল  যোগে ওই সব মাদক স্পটে মাদকসেবীদের আসা-যাওয়া লক্ষ্য করা যায়। ইদার্নিং নারী মাদকসেবীরাও ওই সমস্ত স্পটে ভীড় করছে বলে এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়। মোটরসাইকেলের ঘনঘন হড়েনের শব্দ ও অতিদ্রুত বেগে যান-চলাচলের কারনে জনসাধারণ থাকেন চরম আতঙ্কে এক  শ্রেণীর অসাধু ব্যক্তিদের বিশেষ সুবিধা দিয়ে চলছে মাদক সম্রাট নবির মিয়া ও তার সহযোগী শফিক এর  জমজমাট মাদক ও চোরাচালান ব্যবসা দিনের পর দিন। আখাউড়া থানা সূত্রে জানা  যায়, মাদক চোরা কারবারী নবির মিয়া অত্র থানার বেশ কয়েকটি মাদক মামলার গ্রেফতারী পরোয়ানা জারিকৃত আসামী। কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী নবির ও তার সহযোগী মাদক ব্যবসায়ী শফিক সিন্ডিকেটকে একাধিক অভিযান পরিচালনা করেও গ্রেফতার করা যায় নি। এলাকাবাসী জানান, দিনের বেলায় নবির ও শফিককে  প্রতিনিয়তই ঘুরাফেরা করতে দেখা যায়। মাদক ব্যবসায়ী নবির ও শফিকের রয়েছে অত্র এলাকাসহ উপজেলা ও জেলায় অদৃশ্য সঙ্গবদ্ধদল উক্ত মাদক চোরাকারবারীদেরকে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে মদদ যোগায় এমনি অভিযোগ এলাকাবাসীর। নিরাপত্তা জনিত কারণে কেউ ভয়ে প্রতিবাদ করতে সাহস পায় না। এলাকা শান্তি প্রিয় মানুষজনেরা জানান, অতিসত্বর চোরাকারবারীদের আইনের আওতায় না আনা গেলে যুব সমাজকে চরম অবক্ষয়ের ধারগোড়ায় পৌঁছাবে মাদক চোরাকারবারী সঙ্গবদ্ধদলগুলি। মাদক স্পট গুলিকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন সময়ে এলাকায়  চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই ও দাঙ্গা-হাঙ্গামার মতো অপ্রীতিকর ঘটনার সূত্রপাত ঘটে এমনি অভিমত সুশীল সমাজের।  

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares