আশুগঞ্জে প্রতিবন্ধী কিশোরী ধর্ষিত ॥ অভিযুক্তকে জোরপূর্বক ছাড়িয়ে নেয়ার অভিযোগ

0 0


প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে বুদ্ধি ও বাক প্রতিবন্ধি এক কিশোরীকে ধর্ষণ করেছে এক বখাটে। ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার দুপুরে উপজেলার লালপুর ইউনিয়নের হোসেনপুর টানপাড়া গ্রামে। ঘটনার পরে এলাকাবাসী অভিযুক্ত যুবককে আটক করলেও তার আত্মীয়রা জোরপূর্বক তাকে ছাড়িয়ে নিয়ে যান। বর্তমানে সে পলাতক। এ ঘটনায় আশুগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মঙ্গলবার সকালে ওই কিশোরীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য পুলিশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরন করে।
কিশোরীর পরিবার, এলাকাবাসী ও মামলায় বলা হয়, উপজেলার লালপুর ইউনিয়নের হোসেনপুর টান পাড়া গ্রামের বাক ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরী-(১৪) কে গত সোমবার দুপুর ১২টার দিকে একই গ্রামের শিশু মিয়ার পুত্র রিকসা চালক নাঈম মিয়া-(২৮) ফুঁসলিয়ে একই এলাকার একটি পাটক্ষেতে নিয়ে গিয়ে ধর্ষন করে। এলাকাবাসী পাটক্ষেতে মেয়েটির গোঙ্গানীর শব্দ শুনতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করেন। এসময় অভিযুক্ত নাঈম দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরে এলাকাবাসী নাঈমকে আটক করলেও তার আত্মীয় স্বজন জোরপূর্বক তাকে ছাড়িয়ে নিয়ে যান।
এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই মোঃ রাকিব বলেন, প্রাথমিক তদন্তে ধর্ষনের আলামত পাওয়া গেছে। ডাক্তারী পরীক্ষার রির্পোট আসলে পুরোপুরি নিশ্চিত হওয়া যাবে।
এ ব্যাপারে লালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোর্শেদ মাষ্টার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে তদন্ত সাপেক্ষে সুষ্ঠু বিচার দাবি করেন।  
এ ব্যাপারে আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গোলাম ফারুক বলেন, ধর্ষনের ঘটনায় কিশোরীর মা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন। আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। আসামীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares