নাসিরনগরে কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকায় পাঁচ চিকিৎসককে শোকজ

0 0

প্রতিনিধি : কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে পাঁচ চিকিৎসককে শোকজ করা হয়েছে। জেলার সিভিল সার্জন ডা. মে. সরফরাজ খান চৌধুরী  রোববার দুপুরে নাসিরনগর হাসপাতাল আকস্মিক পরির্দশনে গিয়ে তাদেরকে শোকজ করেন। এরা হলেন জুনিয়র কনসালটেন্ট (অর্থো-সাজার্রী) ডা. আবদুল হালিম, জুনিয়র কনসালটেন্ট (চর্ম ও যৌন) তাবিন্দা আনজুম, মেডিক্যাল অফিসার ডা. জামাল উদ্দিন আহমেদ, মেডিক্যাল অফিসার ডা. রাবেয়া আক্তার ও মেডিক্যাল অফিসার ডা. তামান্না। তাদেরকে সাতদিনের মধ্যে জবাব দেয়ার কথা বলা হয়েছে।
তাদের শোকজের বিষয়টি নিশ্চিত করে সিভিল সার্জন ডা. মো. সরফরাজ খান চৌধুরী জানান, ‘প্রয়োজনে তাদের বেতন-ভাতা বন্ধ রাখা হবে।’ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. আবু ছালেহ মোহাম্মদ মুসা খান ওই পাঁচ ডাক্তারের অনুপস্থিত থাকার কথা স্বীকার করে জানান, ‘সিভিল সাজর্ন মহদোয়ের মনিটরিংকালে তাদের অনুপস্থিতির বিষয়ে অবগত করা হয়।’ উল্লেখ্য, গত শনিবার সকাল সাড়ে ১০ টা পর্যন্ত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডাক্তারের অনুপস্থিতির কারণে ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করে আগত রোগীরা হৈচৈ শুরু করেন। পরে আগত রোগীরা উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. আবু ছালেহ মোহাম্মদ মূসা খানকে অবগত করলে তিনি  রোগীদেরকে চিকিৎসা দেয়া বিষয়টি নিশ্চিত করলে রোগীরা শান্ত হয়। এ বিষয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া টোয়েন্টিফোর ডট কমসহ বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় দৈনিকে সংবাদ প্রকাশিত হলে নাসিরনগরে তোলপাড় শুরু হয়। একাধিক সূত্র জানায়, এদের মধ্যে তিনজন ডাক্তারের প্রায়ই হাসপাতালে অনুপস্থিত থাকার অভিযোগ দীর্ঘদিনের। তারা সপ্তাহে মাত্র দুইদিন হাসপাতালে হাজিরা দিয়ে থাকেন। কেউ কেউ বিএমএ’র নাম ভাঙিয়েও গড় হাজিরা দিয়ে থাকেন।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares