সরাইল ২৪ ঘন্টা অন্ধকারে মোমবাতির আলোয় উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা

0 0
গত বুধ ও বৃহস্পতিবার পুরো সরাইল ছিল ২৪ ঘন্টা অন্ধকারে। ফলে সরাইল কেন্দ্রের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে মোমবাতি আলোয়। কেন্দ্রের পাশের দোকান গুলোতে এক সময় মোমবাতি পাওয়া যায়নি। বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষের জবাব সমস্যা কোথায় সন্ধান করছি।
জানা যায়, গত বুধবার গভীর রাতে বিদ্যুৎ চলে যায়। বৃহস্পতিবার  সকাল ১০ টা থেকে শুরু হয় উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা। বিদ্যুৎহীন অবস্থায় পরীক্ষা শুরুর সাথে সাথে মেঘে আকাশ কাল হয়ে যায়। নেমে আসে অপ্রত্যাশিত ঘোর অন্ধকার। উপজেলা সদরের  সরাইল অন্নদা সরকারি  উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে এবং অরুয়াইল বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের উপকেন্দ্রে উপজেলার ৪ শত ২ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় ব্যস্ত। খাতা দেখা যাচ্ছে না। দিশেহারা হয়ে পড়ে পরীক্ষার্থীরা। যে করেই হউক পরীক্ষা তো দিতে হবে। বিদ্যুৎ বিভাগের লোকজন তখনো বলছে কোথায় সমস্যা অনুসন্ধান করছি। এখনো পাচ্ছি না। পরীক্ষা কেন্দ্রে দায়িত্বে নিয়োজিত লোকদের সহায়তায় পরীক্ষার্থীরা বাহিরের দোকান থেকে মোমবাতি ক্রয় করে  এনে কোন রকমে কাজ চালাতে থাকে। বিদ্যুতের জন্য অপেক্ষা করতে করতে পুরো তিন ঘন্টায় মোমবাতির আলোয় পরীক্ষা দিতে হয় তাদের। কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বায়তুল হোসেন খন্দকার বলেন, এত গুরুত্বপূর্ণ একটি পরীক্ষার দিনে বিদ্যুৎ বিভাগের এমন খাম খেয়ালি সত্যই দুঃখজনক। গত বৃহস্পতিবার বিকেলে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ছিল দেশের প্রখ্যাত সাংবাদিক ও পি আই বি’র চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান মিলনের সংবর্ধনা। প্রতিক’ল আবহাওয়া ও বিদ্যুৎহীনতায় ¤¬ান হয়ে যায় গুরুত্বপূর্ণ অনুষ্ঠানটি। হতাশ হন সংবর্ধনা সভার প্রধান অতিথি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। বিশেষ অতিথি পি আই বি’র মহাপরিচালক দুলাল চন্দ্র বিশ্বাস, পি আই বি’র রিসোর্স অফিসার  শেখ মজলিশ ফুয়াদ, রাফিজা রহমান, দৈনিক সমকালের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক আবু সাঈদ খান, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক এমপয়েজের সাবেক সভাপতি সুলমান খান মাসুদ। রাত ৯টা পর্যন্ত বিদ্যুৎ না আসায় সরাইলের সংবাদ কর্মীরা ওই দিন কোন সংবাদ পত্রিকায় প্রেরন করতে পারেননি। সরাইল প্রেস ক্লাবের সভাপতি মোঃ আইয়ুব খান, স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার মোঃ আনোয়ার হোসেন ও আ’লীগ নেতা মুক্তিযোদ্ধা এড. আব্দুর রাশেদ বিদ্যুতের কারনে অনুষ্ঠানের সৌন্দর্য্য নষ্ট হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। সরাইল পি ডি বি’র আবাসিক প্রকৌশলী মোঃ শাহ আলম শেখ বলেন, আশুগঞ্জ থেকে শাহবাজপুর পর্যন্ত ৩৩ হাজার কেবি লাইনের কোন একটি স্থানে সমস্যা হয়েছিল। সমস্যা চিহ্নিত করে সমাধান করতে অনেক সময় লেগেছে।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares