একুশে পদক ২০১২-এ ভূষিত হওয়ায় হাবিবুর রহমান মিলনকে গনসংবর্ধনা

0 0

রাষ্ট্রীয় ভাবে একুশে পদক- ২০১২-এ ভূষিত হওয়ায় প্রখ্যাত সাংবাদিক, কলামিস্ট, দৈনিক ইত্তেফাকের  উপদেষ্টা সম্পাদক, প্রেস ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ ( পি আই বি) এর চেয়ারম্যান সরাইলের সন্তান মোঃ হাবিবুর রহমান মিলনকে গনসংবর্ধনা দিয়েছে সরাইলের সর্বস্থরের মানুষ। গত বৃহস্পতিবার রাতে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সংবর্ধনা পরিষদের আহব্বায়ক আব্দুল হালিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- পি আই বি’র মহাপরিচালক দুলাল চন্দ্র বিশ্বাস, পি আই বি’র রিসোর্স অফিসার  শেখ মজলিশ ফুয়াদ, রাফিজা রহমান, দৈনিক সমকালের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক আবু সাঈদ খান, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক এমপ্লয়েজের সাবেক সভাপতি সুলমান খান মাসুদ, সরাইল প্রেস ক্লাবের সভাপতি মোঃ আইয়ুব খান, স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার মোঃ আনোয়ার হোসেন, আ’লীগ নেতা মুক্তিযোদ্ধা এড. আব্দুর রাশেদ প্রমূখ। শুরুতেই অতিথিদের ফুলের মালা দিয়ে বরন করে নেয়া হয়। হাবিবুর রহমান মিলনের জীবনি পাঠ করেন মোঃ শরীফ উদ্দিন। প্রধান অতিথি বলেন, আজ আমরা গনতান্ত্রিক শাসন ব্যাবস্থায় বসবাস করছি। এক সময় এ দেশ জঙ্গী শাসন দ্বারা পরিচালিত হতো। তখন মুক্তিযুদ্ধের কথা, বঙ্গবন্ধুর কথা, গনতন্ত্রের কথা ও তরুন প্রজন্মের কথা যার কাছে বলা যেত তিনিই হলেন হাবিবুর রহমান মিলন। সাংবাদিকতা ও ইতিহাস রক্ষায় তিনি দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। দেশ বিদেশের অনেকেই খুঁজ করতো কে এই অনুসন্ধানী। সত্য অনুসন্ধান করে সত্য প্রকাশ করাই একজন সৎ সাংবাদিকের কাজ। সত্যকে প্রতিষ্ঠিত ও প্রকাশ করা অত্যন্ত কঠিন কাজ। ৭৫’এর পর এ দেশে অনেকেই সত্য প্রকাশ করতে ভয় পেয়েছেন। তখন সাহসের সাথে এ কঠিন কাজটি করেছেন মিলন। কবির চৌধুরী এবং গাজিউল হক ও তখন ভয় পাননি। ভবিষ্যতে ও মিলন বিভিন্ন রাষ্ট্রীয় পদকে ভূষিত হবেন। তাই আয়োজকদের আমি ধন্যবাদ জানাই। মিলন দীর্ঘদিন সাংবাদিকদের নেতৃত্ব দিয়েছেন। তিনি বলেন, এ দেশকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় গড়ে তুলতে ও বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা উপহার দিতে সৎ সাংবাদিকতা খুবই প্রয়োজন। সংবর্ধিত ব্যাক্তি হাবিবুর রহমান মিলন বক্তব্য দিতে গিয়ে আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন। তিনি সরাইলের মাটি ও মানুষের প্রতি তার আজন্ম ভালবাসা মায়া মমতার কথা ব্যাখ্যা করেন। এ আয়োজন করার জন্য সরাইল বাসীর প্রতি তিনি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। পরে হাবিবুর রহমান মিলনের হাতে সংবর্ধনা ক্রেস্ট তুলে দেন আব্দুল হালিম। সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সংবর্ধনা পরিষদের সদস্য সচিব হোসাইন আহমেদ তফছির।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares