দারিয়াপুর-সাদেকপুর সড়কে সিএনজি চলাচল উন্মুক্ত করতে তিন ইউনিয়নের সভা:রেলপথ বন্ধ করে দাবি আদায়ের ঘোষণা

0 0

শামীম উন বাছির::শহরের বর্ডার বাজার থেকে বড়াইল পর্যন্ত দারিয়াপুর-সাদেকপুর সড়ক নামে পরিচিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া পশ্চিমাঞ্চলের ৩ ইউনিয়নের লক্ষাধিক লোকের যাতায়তের সিএনজি চলাচল উন্মুক্ত করে দেয়ার দাবীতে আবারো আন্দোলন দানা বেঁধে উঠেছে। শনিবার নাটাই দক্ষিন, সাদেকপুর ও বড়াইল ইউনিয়নের লোকজনের পয়াগ নরসিংসার এ বারী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সমাবেশ করেছে। এতে উল্লেখিত রাস্তায় সিএনজি চলাচল পুনরায় চালু করতে যেকোন আন্দোলনের প্রয়োজনে একটি ঐক্য কমিটি করা হয়।
আবুল কাশেমের সভাপতিত্বে ওই সভায় বক্তব্য রাখেন নাটাই দক্ষিন ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মো: হোসেন,বর্তমান চেয়ারম্যান আবদুল কাইয়ুম,সাদেকপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো: ইকবাল হোসেন,সাবেক চেয়ারম্যান কদর মাহবুব সিদ্দিকী,সাবেক চেয়ারম্যান মো: হাবিবুর রহমান, এডভোকেট বশির আহমেদ, জেলা কৃষকলীগের সাবেক সভাপতি মো: শাহআলম, মুক্তিযোদ্ধা নূরুল আমিন, আরজু মেম্বার, শহিদ মেম্বার, মতিউর রহমান, হাবিব মেম্বার, শফিকুল ইসলাম, জহিরুল হক চৌধুরী লিটন, ছাইদুল হক জুয়েল, আলী আজম, নান্নু মাষ্টার, সাবেক মেম্বার কুদ্দুস মিয়া, আবদুস ছালাম, আবু নছর প্রমূখ।
সভায় বক্তারা বলেন, সাদেকপুর দারিয়াপুর রাস্তা এক’শ বছরের পুরনো। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পৌরসভার মেয়র এ রাস্তাটিতে সিএনজি অটোরিক্সা চলাচল বন্ধ করে দিয়েছেন। শুধু এলাকার সাধারন মানুষই নন এলাকার জনপ্রতিনিধিদেরকেও সিএনজি অটোরিক্সা নিয়ে যাওয়ায় টেনে হিচড়ে নামিয়ে দেওয়া হয়েছে। এটা পুরো এলাকার মানুষের প্রতি অসম্মান। রাস্তা বন্ধের মধ্য দিয়ে এলাকার মানুষের মৌলিক অধিকারও হরণ করা হয়েছে। বক্তাদের কেউ কেউ প্রয়োজনে দারিয়াপুর এলাকায়  দেশের পূর্বাঞ্চলের রেল যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়ে সিএনজি চলাচল উম্মুক্ত করার কথা বলেন। সভায় এ বিষয়ে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলার অঙ্গিকার ব্যক্ত করা হয়। এই লক্ষ্যে পশ্চিমাঞ্চলের তিন ইউনিয়নের নেতৃস্থানীয় লোকজনকে নিয়ে একটি ঐক্য কমিটি করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। পরে ওই রাতেই একটি ঐক্য কমিটি করা হয়। এই কমিটির নেতৃত্বে আজকালের মধ্যে পরবর্তী করণীয় ঠিক করার সিদ্ধান্ত হয়।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares