জেলা বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের বিক্ষোভ মিছিল

0 0


ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালনে বাধা দেওয়ার প্রতিবাদে সারা দেশব্যাপী বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কর্মসুচির অংশ হিসেবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বিএনপি ও তার সকল অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে এক বিশাল বিক্ষোভ মিছিল শহরের রেল গেইট চত্বর থেকে বিকাল ৪টায় শুরু হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে প্রেস ক্লাব চত্বরে এসে এক বিক্ষোভ সমাবেশে মিলিত হয়। উক্ত বিক্ষোভ সমাবেশ সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা বিএনপির আহ্বায়ক ও সাবেক পৌর মেয়র হাজী হাফিজুর রহমান মোল্লা কচি। সভায় অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সংগ্রামী সদস্য সচিব মোঃ জহিরুল হক খোকন, পৌর বিএনপির সভাপতি ও জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক এডঃ সফিকুল ইসলাম, সদর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও জেলা যুবদলের সদস্য সচিব মোঃ আলী আজম, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মোঃ শামীম মোল্লা।
এসময় জেলা সিনিয়র নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলার যুগ্ম আহ্বায়ক মোঃ জিল্লুর রহমান, মোবারক মুন্সি, এডঃ গোলাম সারওয়ার খোকন, এডঃ আনিছুর রহমান মঞ্জু ও হাজী সিরাজুল ইসলাম, জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি হেবজুল বারী, পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোঃ আজিম, জেলা বিএনপির সাবেক ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মাইনুল হোসেন চপল, মোঃ আলমগীর হোসেন, নিয়ামুল হক, এডঃ আলী আজম চৌধুরী, জেলা মহিলা দলের সভানেত্রী এডঃ ইসমত আরা, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ইয়াছিন মাহমুদ, জেলা যুবদল নেতা তানিম শাহেদ রিপন, এডঃ মাসুদ, ছাত্রদল নেতা রুবেল, সানি।
প্রতিবাদ সভাটি সার্বিক পরিচালনা করেন জেলা বিএনপির সাবেক দপ্তর সম্পাদক আলহাজ্ব এ. বি. এম. মোমিনুল হক ও সাবেক প্রচার সম্পাদক নজির উদ্দিন আহমেদ।
বক্তারা বলেন, জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস বাংলাদেশের গণতন্ত্রকামী মানুষের চেতনার সাথে জড়িত। এই দিবসে এ দেশের রাজনীতিতে বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবর্তন হয়েছিল এবং সংবাদপত্র ও মানুষের বাক স্বাধীনতা ফিরিয়ে আনা হয়েছিল। বর্তমান ফ্যাসিষ্ট আওয়ামী সরকার কর্তৃক গত ৮ নভেম্বরে ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালনে বাধা প্রদান করে এদেশে এক দলীয় শাসন ব্যবস্থা কায়েম করার পায়তারা করছে। দেশের ১৬ কোটি মানুষ এই ষড়যন্ত্রকে নসাৎ করে নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক ব্যবস্থা ফিরিয়ে আনবে।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares