তিতাস নদীতে পোনা অবমুক্তিতে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ

0 0

নিজম্ব প্রতিবেদক: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গত ৩১শে আগস্ট শনিবার উপজেলা মৎস্য অধিদপ্তরের উদ্যোগে হাওর অঞ্চলে মাছের পোনা অবমুক্তি করণে ব্যাপক অনিয়ম ও দূনীর্তির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, ৩ হাজার কেজি রুই, মৃগেল, কাতল, কালিবাউশ এই চার প্রকারের মাছের পোনা সরবারহ করার জন্য উপজেলা মৎস্য অধিদপ্তর কর্তৃক মেসার্স হানিফ এন্টার প্রাইজকে কার্যাদেশ প্রদান করা হয়। কিন্তু মাত্র ২৩৯ কেজি মাছের পোনা অবমুক্তি করা হয়েছে। এছাড়াও ১০ থেকে ১৫ সেঃ মিঃ আকারের জীবন্ত ও সুস্থ মাছের কথা থাকলেও রোগ্ন ও মরা মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়েছে। যা নদীতে ছাড়ার পর পানিতে ভেসে উঠে।
সাতবাড়ীয়া ঘাটের তিতাস পাড়ের এলাকাবাসী জানান, মাছের ওজন দেওয়ার সময় ইটের টুকরো জালের নিচে রেখে মাছের ওজন দেয়া হয়েছে । প্রকৃত মাছের ওজন আরও কম হবে এবং মাছ ছাড়ার পর তা পানিতে ভেসে উঠে।

এ ব্যাপারে উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ শরীফ উদ্দিন ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৪ .কমকে বলেন, তিন হাজার কেজি মাছের পোনা সরবারহের জন্য কার্যাদেশ প্রদান করা হয়েছিল। এর মধ্যে ২৩৯ কেজি মাছের পোনা ছাড়া হয়েছে। বাকী পোনা পরে ছাড়া হবে।

কিন্তু মৎস্য কর্মকর্তার বক্তেব্যে পরে কখন পোনা ছাড়া হবে তারও কোন সঠিক তথ্য পাওয়া যায়নি। এদিকে, মাছের পোনা অবমুক্তির তিন দিন পেরিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত বাকী  মাছের পোনা নদীতে অবমুক্ত করার খবর পাওয়া যায়নি।
এলাকা বাসী অনেকেই মনে করেন যে, মাছের পোনা আর পরে ছাড়া হবে না।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares