পৌরবাসীর জীবন যাত্রার মান উন্নয়ন ও বিশিষ্টি ব্যাক্তিদের স্মরনীয় রাখতে উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে .. পৌর মেয়র

0 0

প্রতিবেদক : পৌরবাসীর বহূল প্রত্যাশিত স্থানীয় লোকনাথ দীঘিরপাড় (টেংকেরপাড়) এ নব নির্মিত পৌর কমিনিউটি সেন্টার  সোমবার সকালে শুভ উদ্ভধোন করা হয় । শহরের বিশিষ্ট গন্যমান্য ব্যাক্তিদের উপস্থিতিতে শুভ উদ্বোধন করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার মেয়র মোঃ হেলাল উদ্দিন।
এ সময়  সমবেত সুধি জনের উদ্দেশে মেয়র বলেন, শহরবাসির বিভিন্ন পারিবারিক অনুষ্ঠান, সামাজিক-ব্যাবসায়ী সংগঠনের বিভিন্ন সভা সেমিনার আয়োজনের জন্য বৃহৎ কলবরে আধুনিক সুযোগ সুবিধা সম্বলিত একটি কমিনিউটি সেন্টারের অভাব দীর্ঘ্য দিনের। এ অভাব পূরনে পরিত্যক্ত পুরনো কমিনিউটি সেন্টার টির স্থলে ত্রিতল বিশিষ্ট আধুনিক সুযোগ সুবিধা সম্বলিত এই কামনিউটি সেন্টার টি নির্মান করা হয়েছে। এটি নির্মানের ফলে শহর বাসির বিভিন্ন আচার অসুষ্ঠান আয়োজন সহজতর হবে। তিনি বলেন  ঋনের বোজা মাথায় নিয়েও  নানা প্রতিকুলতার মাঝেও শহর বাসির জীবন-যাত্রার মান উন্নয়নে আমরা বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করছি। তিনি পৌরসভার উন্নয়নে নাগরিক বৃন্দের সহযোগিতা কামনা করেন।
কমিনিউটি সেন্টারটির নাম করন প্রসঙ্গে মেয়র বলেন, প্রখ্যাত আইনজ্ঞ সৈয়দ সিরাজুল ইসলাম একজন বরেন্য রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব। বাংলাদেশের স্বাধীনতা পূর্ববর্তি আন্দোলনে তিনি বলিষ্ঠ ভুমিকা রেখেছেন। তিনি মুক্তিয়োদ্ধের একজন অন্যতম সংগঠক। ৭২ এ গণপরিষদ সদস্য হিসাবে বাংলাদেশের সংবিধান প্রনয়নে তিনি ঐতিহাসিক দায়িত্ব পালন করেন। দেশ ও জাতির কল্যানে তিনি অসামান্য অবদান রেখেছেন। সৈয়দ সিরাজুল ইসলাম ব্রাহ্মণবাড়িয়ার একজন গর্বিত সন্তান উল্লেখ করে, দেশ ও জাতির কল্যানে অবদানকারি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিশিস্ট ব্যাক্তদের স্মরনীয় রাখতে বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে বলে মেয়র জানান। এ সময় তিনি এ স্থানটির ভুমিদাতা স্বর্গীয় লোকনাথ রায় চৌধুরী কে শ্রদ্ধার সাথে স্বরণ করেন।
উদ্বোধন অনুষ্ঠানে  অন্যানের মোধ্যে উপস্থিত ছিলেন পৌর কাউন্সিলর এডঃ মোঃ শাহ আলম, শাহ মোঃ নাছিম, ছাদেকুর রহমান শরিফ, আবুল বাসার, শেখ বাবর আলি, মহিলা কাউন্সিলর নিলুফা ইয়াসমিন, রাহেলা ইসলাম, হোসনে আরা বেগম, শামিমা বেগম , বিশিষ্ট চিকিৎসক ডাঃ বজলুর রহমান,ডাঃ সুকেন্দু বিকাশ তালুকদার, ডাঃ মেজবাহ উদ্দিন, বীর মুক্তি যোদ্ধা শেখ কুতুব হোসেন, বিশিষ্ট ব্যাবসায়ি লোকমান হোসেন, চেম্বার পরিচালক হাজি শাহজাহান মিয়া, সৈয়দ নজরুল ইসলাম,শাহ আলম সরকার, নির্বাহী প্রকৌশলী এটিএম মহিউদ্দিন খন্দকার, পৌর সচিব মোঃ ইসহাক ভূঞা, হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা গোলাম কাওছার, সহকারি প্রকৌশলী কাওছার আহমেদ, সাবেক কমিশনার মোসতাক আহমেদ খোকন, আল আমিন, মিজান আনসারি, কমরেড সাজিদুল ইসলাম, এডঃ শরিফ হোসেন, আতাউর রহমান শাহিন, আতিকুল ইসলাম ছাদেক , নুরুল ইসলাম, মো দুলার মিয়া ও সৈয়দ সিরাজুর ইসলামের এক মাত্র পুত্র সৈয়দ ফয়জুল ইসলাম ফয়সল প্রমূখ।

মেয়র জেলা বাসির মোঙ্গল উন্নয়ন কর্মকান্ডের ধারাবাহিকতা কামনা করে মহান আল্লাহ রাব্বুর আলামিনের কাছে মোনাজাত করেন।পরে অতিথি বৃন্দ কমিনিউটি সেন্টার টির বিভিন্ন অংশ ঘুরে ঘুরে দেখেন ও নির্মান কাজের ভুয়ষী প্রশংসা করেন । উল্লেখ্য তিন কোটি টাকা ব্যায়ে ত্রিতল বিশিষ্ট কমিনিউটি সেন্টার টির বাস্তবায়ন করছে মের্সাস এবি ইনজিনিয়ার্স।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares