বেগম জিয়ার প্রতিশ্রুতি অনুসারে, নিহত ৩৫ পরিবারের মাঝে শ্যামলের টাকা ও ত্রাণ বিতরণ শুরু

0 0

undefined

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর, বিজয়নগর ও আখাউড়া উপজেলায় টর্ণেডোর ছোবলে নিহত ৩৫ পরিবারের যেসব প্রতিনিধিরা বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার অর্থ সহায়তা ও ত্রাণ সামগ্রী সরাসরি গ্রহণ করেননি তাদের মধ্যে চারজনকে গত ৩১ মার্চ রবিবার নগদ টাকা ও ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। সদর উপজেলার রামরাইল, সুলতানপুর ও বাসুদেব ইউনিয়নের তিনজন ও জেলা কারাগারের রক্ষীসহ মোট চারজনের পরিবারকে খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে নগদ টাকা ও ত্রাণ সামগ্রী তুলে দেন জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি প্রকৌশলী খালেদ হোসেন মাহবুব শ্যামল। তিনি নিহত এসব ব্যক্তিদের বাড়িতে গিয়ে নগদ ৩০ হাজার টাকা, ১০ কেজি চাউল, শাড়ি ও লুঙ্গি বিতরণ করেন। ঐদিন যারা এসব সামগ্রী পেয়েছেন তারা হলেন-সুলতানপুর ইউনিয়নের পাতৈরহাতা গ্রামের নিহত ডলি রাণী দেবের পক্ষে তার স্বামী রতন দেব, রামরাইল ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর গ্রামের নিহত আবু তাহের ভূঁইয়ার পক্ষে তার বাবা দুধ মিয়া, বাসুদেব ইউনিয়নের পাইকপাড়া গ্রামের নিহত মাহমুদুল হক মোল্লার পক্ষে তার চাচা ওবায়দুল হক মোল্লা। এছাড়া জেলা কারাগারের রক্ষী নিহত মাকসুদুল আলমের পক্ষে জেল সুপার গিয়াস উদ্দিনের হাতে নগদ টাকা ও ত্রাণ সামগ্রী তুলে দেন। এ সময় তার সঙ্গে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি হাফিজুর রহমান মোল্লা কচি, জিল্লুর রহমান, সাংগঠণিক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নূরে আলম সিদ্দিকী, জেলা যুবদল আহবায়ক মনির হোসেন, যুগ্ম আহ্বায়ক আলী আজম, সদস্য তানিম শাহেদ রিপন, সদর উপজেলা যুবদলের আহবায়ক এডভোকেট আব্দুর রহিম গোলাপ, যুগ্ম আহবায়ক মুছা, স্বেচ্ছাসেবক দলের মইনুল হোসেন প্রমুখ নেতৃবৃন্দ। (প্রেস বিজ্ঞপ্তি)

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares