সেই শোকাবহ ৪ ফেব্রুয়ারি, জেলা ছাত্রলীগের ব্যাপক কর্মসূচি

0 0

মনিরুজ্জামান পলাশ : ৪ ফেব্রুযারি সোমবার,ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসীর জন্য একটি শোকাবহ দিন। ২০১১ সালের এই দিনে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়াস্থ বঙ্গবন্ধুর মাজার জিয়ারত শেষে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ফেরার পথে ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলায় মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় ১১ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীসহ ১২জন মারা যায়।

এরা হচ্ছেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা মেহেদি আলম শান্ত, জেলা ছাত্রলীগ নেতা আরিফুল ইসলাম বাবু, শৌকত হোসেন সরকার লিয়েন, শেখ রায়হান, আসিফ চৌধুরী, জিয়াউল আমিন রিয়াদ, ইমরানুর রেজা এমরান, আলমগীর হোসেন, মোর্শিদ আলম, শাহনাজ রহমতুল্লাহ রোমেল, তানভির আহমেদ এবং গাড়িচালক মিজানুর রহমান।

দিনটি স্মরণে রেখে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে ব্যাপক কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। গৃহিত কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে কালোব্যাজ ধারণ, শোক র‌্যালি, মিলাদ ও আলোচনা সভা।

সকালে শহরের টি.এ.রোডে (মঠের গোড়া) ১২ ছাত্রলীগ নেতার স্মরনে স্মৃতি সৌধের উদ্বোধন করবেন মোকতাদির চৌধুরী এমপি। ৩০ লাখ টাকা ব্যায়ে নির্মিতব্য স্মৃতি সৌধের নির্মান কাজ বাস্তবায়ন  করেছে জেলা পরিষদ। এ ছাড়া প্রত্যেকের পরিবারের পক্ষ থেকে মিলাদ কোরান খানী ও কাঙ্গালী ভোজের ব্যাবস্থা করা হয়েছে।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares