অন্তিম ইচ্ছে পূরণ হলো না সাবেক এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা দিলারা হারুন -এর

0 0
আবুল হাসনাত মোঃ রাফি ॥ ব্রাহ্মণবাড়িয়া আওয়ামীলীগের গুরুত্বপূর্ণ পদে ছিলেন তিনি । মহিলা আওয়ামিলীগ ও কৃষক লীগ এর কেন্দ্রের দায়িত্ব পালন করেন।তিনি সবসময় সরব থেকেছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার রাজনীতিতে । সংসদ সদস্য হয়েছেন একবার।দলের দুর্দিনে সাহসী নেতৃত্ব হিসেবে রাজপথে থেকেছেন। বর্নিল রাজনীতির জীবন ছিল তাঁর। অনেক অপূর্ণতা আর অপ্রাপ্তি স্পস্ট করে বলতে পারেন নি । জীবনের শেষ সীমায় এসে দীর্ঘ ৭ বছর তিনি শয্যাশায়ী ছিলেন ।

গত কিছুদিন যাবত জাতীয় ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার স্থানীয় বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত হয়- ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সাবেক সংসদ সদস্য,দেশের অন্যতম সাহসী নারী বীর মুক্তিযোদ্ধা ও বাংলাদেশ আওয়ামী কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি দিলারা হারুন এর জীবনের অন্তিম ইচ্ছা ছিল মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা যদি তাকে হাসপাতালে একবার দেখতে আসতেন তাহলে তিনি মরেও শান্তি পাবেন। কিšুÍ শেষ পর্যন্ত অন্তিম ইচ্ছেটি পূরণ হলো না দিলারা হারুন এর ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার এই সাবেক সংসদ সদস্য,দেশের অন্যতম সাহসী নারী বীর মুক্তিযোদ্ধা ও বাংলাদেশ আওয়ামী কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি দিলারা হারুন গত শনিবার বিকেল ৫ টায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ঢাকার হৃদরোগ ইনস্টিটিউট এ ইন্তেকাল করেছেন । (ইন্নালিল্লাহে — রাজেউন)। গতকাল রবিবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জাতীয় বীর আব্দুল কুদ্দুস মাখন পৌরমুক্ত মঞ্চে এই বীর সেনানীকে রাস্ট্রীয় সম্মান প্রদান করে শ্রদ্ধা জানিয়ে নীরবতা পালন করা হয়। তারপর ফুলে ফুলে ঢেকে দেওয়া হয় লাল সবুজের পতাকায় আচ্ছাদিত কফিন । বাদ যোহর হাজার হাজার মানুষের অংশ গ্রহনে জানাজা শেষে তাকে দাফন করা হয় শেরপুর কবর স্থানে ।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares