ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিএনপির দু’ গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ১০

0 1

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিএনপির দু’গ্রুপের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। শনিবার বিকেলে শহরের পাওয়ার হাউজ রোড এলাকায় বিবাদমান দুই গ্রুপ পৃথক কর্মসূচী পালনকালে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় উভয়পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়।

জানাযায়, গত ১০ আগস্ট জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি ঘোষনা করে কেন্দ্রীয় বিএনপি। এরপর থেকেই বিএনপির একাংশের নেতাকর্মীরা কমিটি বাতিলের দাবীতে প্রতিবাদ জানাতে থাকে। এরই জের ধরে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছিল।

শনিবার বিকেলে নব গঠিত আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব ও জেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম সিরাজ পৌর এলাকার শেখ হাসিনা সড়ক সেতু এলাকা থেকে একটি আনন্দ র‌্যালী বের করে। অপর দিকে একই সময়ে জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি হাফিজুর রহমান মোল্লা কচি ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক জহিরুল হক খোকনের নেতৃত্বে পাওয়ার হাউজ রোডে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার পুত্র আরাফাত রহমান কোকোর জন্মদিন উপলক্ষে আলোচনা সভা ও কেক কাটার আয়োজন করে।

আনন্দ র‌্যালী বের হওয়ার পর উভয় পক্ষের মধ্যে ইট পাটকেল নিক্ষেপ শুরু হয়। প্রায় আধ ঘন্টাব্যাপী চলা সংঘর্ষে জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ইয়াছিন মাহমুদসহ উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়। এ সময় পুরো এলাকাজুড়ে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় ১ জনকে আটক করে পুলিশ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আসলাম হোসাইন জানান, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি গঠন নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে বিরোধ চলে আসছে। বিকেলে এক পক্ষ আনন্দ র‌্যালী বের করে এবং অন্যপক্ষ কোকোর জন্মদিন পালনের কথা বললেও মূলত আনন্দ মিছিলকে প্রতিহত করার জন্য মাঠে নামে। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। পুলিশ অভিযান চালিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং একজনকে আটক করে।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares