বিএনপি’র আহবায়ক কমিটিকে শহর ছাড়া করল কচি-জহির গ্রুপ

0 2

মনিরুজ্জামান পলাশ: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দু গ্রুপে বিভক্ত হয়ে দলের ৪৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন করেছে বিএনপি’র নেতাকর্মীরা। জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি হাফিজুর রহমান মোল্লা কচি, সাবেক সাধারণ সম্পাদক জহিরুল হক খোকনের নেতৃত্বে কলেজ মোড় থেকে একটি আনন্দ র‌্যালী বের করে। অপর দিকে, সদর উপজেলার নাটাই দক্ষিণ ইউনিয়নের শালগাঁও কালিসীমা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জড়ো হন জেলা বিএনপির আহ্বায়ক মোঃ আব্দুল মান্নান, সদস্য সচিব সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, সদস্য নূরে আলম সিদ্দিকীর অনুসারীরা। সেখানে আনন্দ র‌্যালীর পর কেক কেটে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করে তারা।

এদিকে, শহরের বাইরে গিয়ে অনুষ্ঠান করা নিয়ে নানা মন্তব্য করছেন সাধারন মানুষ। আহবায়ক কমিটির সক্ষমতা নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন অনেকে। অনেকে বলছেন, নবীনগর থেকে আহ্বায়ক মোঃ আব্দুল মান্নানের লোকজন নৌকায় করে যাতে সহজে আসতে পারে সেজন্যই কালিসীমাকে বেছে নেয়া হয়েছে। আবার সদস্য নূরে আলম সিদ্দিকীর এলাকা হওয়ায় সেখানে তার লোকজন আনতেও সুবিধা হবে। তাই শহরের বাইরে গ্রামে গিয়ে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে বলেও মন্তব্য করেছেন অনেকে। এছাড়া সম্প্রতি দলীয় মতবিরোধে নিজ এলাকাতেই শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত হয়েছেন সদস্য সচিব সিরাজুল ইসলাম সিরাজ। এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি থেকে রক্ষা পেতেও দূরে গিয়ে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে বলে অনেকের অভিমত।

এ বিষয়ে সদস্য সচিব সিরাজুল ইসলাম সিরাজ বলেন, কালিসীমা খুব দূরে নয়। গোকর্ণের পাশেই। গোর্কন আমাদের পৌরসভার মধ্যেই । আমরা কালিসীমায় জড়ো হয়ে শহরে আসতে চেয়েছিলাম। তবে পুলিশ আমাদের আসতে দেয়নি। শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত হওয়ার পর ভীতি থেকে শহরের বাইরে অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন কিনা? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি জানি না।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares