ওয়ার্ল্ড কনসার্নের উদ্যোগে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আন্তর্জাতিক মানব পাচার প্রতিরোধ দিবস উদযাপন

0 1

আন্তর্জাতিক বেসরকারী সংস্থা ওয়ার্ল্ড কনসার্ন (বাংলাদেশ) ব্রাহ্মণবাড়িয়া এর এনসিওর প্রোট্রেকশন এন্ড জাস্টিট থ্রু ইনট্রিগ্রেটেড এ্যাপ্রোচ (ইপজিয়া) প্রকল্পটির মাধ্যমে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার সুহিলপুর ইউনিয়নের ইউনিয়ন পরিষদ হল রুমে আন্তজাতিক মানব পাচার প্রতিরোধ দিবস উদযাপন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানের শুরুতে র‌্যালির আয়োজন করা হয়, র‌্যালিটি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে সুহিলপুর বাজার পর্যন্ত পর্দশন করা হয়। এর পরেই দিবসটির মূল অংশ শুরু করা হয়। .

এসময় প্রধান অতিথি তার বক্তবে সবার উদ্দেশ্য করে বলেন, আমরা আজ বিশ্ব মানব পাচার দিবসটি পালন করছি। মানব পাচার বিষয়টি খুবই ভয়াবহ। আমরা মানব পাচার বিষয়ে সবাই সচেতন থাকবো এবং অন্যদেরকে ও এ বিষয়ে সচেতন করব। .

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন উপজেলা যুবউন্নয়ন কর্মকর্তা মোহাম্মদ ফরহাদ হোসেন,বিশেষ অতিথি ছিলেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ এর সভাপতি জাহাঙ্গীর কবীর খান দুলাল, সভাপতি হিসেবে ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান মো: আব্দুর রশিদ ভূইয়া। .

তিনি আরো বলেন, প্রতি বছরই আমাদের দেশ থেকে নারী ও শিশুরা পাচার হয়ে যাচ্ছে। তাই নারী ও শিশুদের বিশেষ সুরক্ষা করে রাখতে হবে। তিনি মায়েদের উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনারা আপনাদের শিশুদের খুবই যতœ সহকারে খেয়াল রাখবেন। .

এসময় প্রধান অতিথি তার বক্তবে সবার উদ্দেশ্য করে বলেন, আমরা আজ বিশ্ব মানব পাচার দিবসটি পালন করছি। মানব পাচার বিষয়টি খুবই ভয়াবহ। আমরা মানব পাচার বিষয়ে সবাই সচেতন থাকবো এবং অন্যদেরকে ও এ বিষয়ে সচেতন করব। .

বিশেষ অতিথি জাহাঙ্গীর কবীর খান দুলাল বিশ্ব মানব পাচার দিবস সম্পর্কে বলেন-আমরা আগে এ বিষয়টি গুরুত্ব দিতাম না। কিন্তু আমরা এখন মানব পাচার প্রতিরোধে সোচ্চার রয়েছি। মাঝে মাঝে আমরা শিশু হারানোর ঘটনা শুনতে পাই। এটি আমাদের জন্য দু:ক্ষজনক। তাই শিশুদের সার্বিক নিরাপত্তায় আমাদের সহযোগিতা করতে হবে। .

তিনি আরো বলেন, প্রতি বছরই আমাদের দেশ থেকে নারী ও শিশুরা পাচার হয়ে যাচ্ছে। তাই নারী ও শিশুদের বিশেষ সুরক্ষা করে রাখতে হবে। তিনি মায়েদের উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনারা আপনাদের শিশুদের খুবই যতœ সহকারে খেয়াল রাখবেন। .

ইপজিয়া প্রোগ্রামের কমিউনিটি প্রোট্রেশন কমিটির সহ-সভাপতি মো: মোজ্জাম্মেল হক বলেন- পাচার প্রতিরোধের জন্য যথাযথো শাস্তির ব্যবস্থা থাকতে হবে, যাতে করে কোন পাচারকারী পাচারের সাথে যুক্ত হতে সাহস না পায়। অনুষ্ঠানের সভাপতি অএ ইউনিয়নের .

বিশেষ অতিথি জাহাঙ্গীর কবীর খান দুলাল বিশ্ব মানব পাচার দিবস সম্পর্কে বলেন-আমরা আগে এ বিষয়টি গুরুত্ব দিতাম না। কিন্তু আমরা এখন মানব পাচার প্রতিরোধে সোচ্চার রয়েছি। মাঝে মাঝে আমরা শিশু হারানোর ঘটনা শুনতে পাই। এটি আমাদের জন্য দু:ক্ষজনক। তাই শিশুদের সার্বিক নিরাপত্তায় আমাদের সহযোগিতা করতে হবে। .

চেয়ারম্যান জনাব মো: আব্দুর রশিদ ভূইয়া বলেন- এ দিবসটি পালন করা খুবই গুরুত্বপূর্ন। তিনি উপস্থিত সকলকে উদ্দেশ্য করে বলেন পাচার বন্ধে শিশুদের একা না ছাড়া, অপরিচিত কাউকে বাড়ীতে আশ্রয় না দেওয়া, অপরিচিত কারো খাবার না খাওয়া, প্রেমের ব্যাপারে মেয়েদের সচেতন , এলাকায় সন্দেহজনক লোক দেখলে খোজ নেওয়া,সঠিক তথ্য না জেনে ছেলে মেয়েকে বিয়ে না দেয়া। .

ইপজিয়া প্রোগ্রামের কমিউনিটি প্রোট্রেশন কমিটির সহ-সভাপতি মো: মোজ্জাম্মেল হক বলেন- পাচার প্রতিরোধের জন্য যথাযথো শাস্তির ব্যবস্থা থাকতে হবে, যাতে করে কোন পাচারকারী পাচারের সাথে যুক্ত হতে সাহস না পায়। অনুষ্ঠানের সভাপতি অএ ইউনিয়নের .

তিনি বলেন কোন বিপদ ঘটার আগে আমাদের সবার সচেতন হয়ে মোকাবিলা করতে হবে, এবং আমাদের সকলকে একএিত থাকতে হবে, আমি ওয়ার্ল্ড কনসার্ন (বাংলাদেশ) ইপজিয়া প্রকল্পকে ধন্যবাদ দেই এত সুন্দর ভাবে অনুষ্ঠানটি আয়োজন করে সুহিলপুর ইউনিয়নে সকলকে সচেতন করার জন্য। .

চেয়ারম্যান জনাব মো: আব্দুর রশিদ ভূইয়া বলেন- এ দিবসটি পালন করা খুবই গুরুত্বপূর্ন। তিনি উপস্থিত সকলকে উদ্দেশ্য করে বলেন পাচার বন্ধে শিশুদের একা না ছাড়া, অপরিচিত কাউকে বাড়ীতে আশ্রয় না দেওয়া, অপরিচিত কারো খাবার না খাওয়া, প্রেমের ব্যাপারে মেয়েদের সচেতন , এলাকায় সন্দেহজনক লোক দেখলে খোজ নেওয়া,সঠিক তথ্য না জেনে ছেলে মেয়েকে বিয়ে না দেয়া। .

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ইপজিয়া প্রোগ্রাম অফিসার প্রবাল সাহা (অর্ক)। তিনি বলেন এবারের মূল প্রতিপাদ্য বিষয়টি হলো পাচারের প্রতিটি শিকারের কাছে পৌছান, কাউকে পিছিয়ে রাখবেন না। তিনি বলেন পাচারের প্রতিটি রুট বন্ধ করে দিতে হবে। আমাদের সবার মানব পাচার বিষয়ে সচেতন হয়ে জাগ্রত থাকতে হবে। এসময় অনুষ্ঠানে অংশগ্রহনকারীদের নানা পরামর্শ ও আলোচনার মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠান সমাপ্ত করা হয়। .

তিনি বলেন কোন বিপদ ঘটার আগে আমাদের সবার সচেতন হয়ে মোকাবিলা করতে হবে, এবং আমাদের সকলকে একএিত থাকতে হবে, আমি ওয়ার্ল্ড কনসার্ন (বাংলাদেশ) ইপজিয়া প্রকল্পকে ধন্যবাদ দেই এত সুন্দর ভাবে অনুষ্ঠানটি আয়োজন করে সুহিলপুর ইউনিয়নে সকলকে সচেতন করার জন্য। .

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ইপজিয়া প্রোগ্রাম অফিসার প্রবাল সাহা (অর্ক)। তিনি বলেন এবারের মূল প্রতিপাদ্য বিষয়টি হলো পাচারের প্রতিটি শিকারের কাছে পৌছান, কাউকে পিছিয়ে রাখবেন না। তিনি বলেন পাচারের প্রতিটি রুট বন্ধ করে দিতে হবে। আমাদের সবার মানব পাচার বিষয়ে সচেতন হয়ে জাগ্রত থাকতে হবে। এসময় অনুষ্ঠানে অংশগ্রহনকারীদের নানা পরামর্শ ও আলোচনার মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠান সমাপ্ত করা হয়। .

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares