আমি বিচারককে বলিনি, বলেছি যে ভিডিও করছিল তাকে- আইনজীবী সমিতির সভাপতি তানভীর ভূঁইয়া

0 2

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এজলাসে বসা একজন বিচারককে অপদস্থ করা এবং তাকে গলাগালের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ করা হয়েছে। এ নিয়ে এখন জেলাজুড়ে আলোচনা-সমালোচনা চলছে।

ছড়িয়ে পড়া তিন মিনিট ১৩ সেকেন্ডের একটি ভিডিওতে দেখা যায়, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক মোহাম্মদ ফারুক ফাঁকা এজলাসে মামলা পরিচালনা করছিলেন। এ সময় কয়েকজন আইনজীবী এজলাসের সামনে গিয়ে দাঁড়ান। তাদের মধ্যে জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি তানভীর ভূঁইয়া, সম্পাদক (প্রশাসন) আক্কাস আলী, আইনজীবী জুবায়ের ইসলাম ছিলেন। তখন এজলাস ঘিরে পুলিশ সদস্যরাও ছিলেন।

একজন আইনজীবী আদালত বর্জনের কথা বলে বিচারককে এজলাস থেকে নেমে যেতে বলেন। কথাবার্তার একপর্যায়ে আইনজীবীরা উত্তেজিত হয়ে পড়েন। এ সময় তারা বিচারকের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণ এবং উচ্চস্বরে গলাগালি করেন।

এ সময় জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি তানভীর ভূঁইয়াকে চড়া গলায়, আঙ্গুল উঁচিয়ে, ধমকের সুরে বিচারককে উদ্দেশ করে ‘নাম, নাম’ বলতেও শোনা যায়। তানভীর ভূঁইয়া বিজয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান।

তবে তানভীর ভূঁইয়া বিচারকের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, “আমি ঘটনাস্থলে ছিলাম। এ সময় সেখানে একটি ছেলে মোবাইল দিয়ে এটি ভিডিও করছিল। আমি তাকে সেখান থেকে নেমে যাওয়ার কথা বলেছি। বিচারককে আমি এজলাস ছাড়তে বলেছি। কিন্তু ওইভাবে এটা আমি বিচারককে বলিনি, বলেছি যে ভিডিও করছিল তাকে।”

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

Shares